এবার বিমান-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা উত্তর কোরিয়ার

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশিত: ১ অক্টোবর ২০২১ ০৬:৪৬

উত্তর কোরিয়া বলছে, বিমান-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রটি উল্লেখযোগ্য যুদ্ধ সক্ষমতা দেখিয়েছে

সেপ্টেম্বর জুড়ে নতুন নতুন সমরাস্ত্র পরীক্ষা করে প্রতিদ্বন্দ্বীদের মধ্যে উত্তেজনা বাড়িয়ে দিয়েছে উত্তর কোরিয়া। যার চতুর্থটি একদম মাসের শেষ দিন আকাশে উড়লো। খবর বিবিসি।

উত্তর কোরিয়া জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার তারা বিমান-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে।

এর মাত্র একদিন আগে নতুন হাইপারসনিক মিসাইল উড়িয়েছে দেশটি। ধারণা করা হচ্ছে, এর পারমাণবিক সক্ষমতা রয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিংকেন। তিনি বলেন, এ পরীক্ষাগুলোর জন্য অস্থিরতা ও নিরাপত্তাহীনতার বৃহত্তর আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

পিয়ংইয়ং বলছে, আত্মরক্ষার জন্য তাদের এ সব অস্ত্র দরকার। এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে ‘দ্বৈত নীতি’র অভিযোগ তুলেছে দেশটি।

বিমান-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মাধ্যমে উত্তর কোরিয়া বুঝিয়ে দিল, নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও অস্ত্র ভান্ডার সমৃদ্ধকরণ থেকে পিছিয়ে আসার কোনো ইচ্ছা নেই তাদের।

রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম কেসিএনএ বলছে, নতুন বিমান-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রটি উল্লেখযোগ্য যুদ্ধ সক্ষমতা দেখিয়েছে ও এতে যুক্ত রয়েছে নতুন ধরনের প্রযুক্তি।

এ দিকে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে যুক্তরাষ্ট্র কোনো ধরনের শর্ত ছাড়াই যেকোনো সময় যেকোনো স্থানে উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকের প্রস্তাব দিয়ে আসছে। যদিও বলা হয়, আলোচনায় পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের চেষ্টা চালানো হবে। তবে একে ‘লোক দেখানো’ প্রস্তাব বলে উল্লেখ করেছেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন।

এক বছরের বেশি সময় একদম বিচ্ছিন্ন ছিল উত্তর কোরিয়া। মহামারির কারণে মিত্র চীনের সঙ্গে বেশির ভাগ বাণিজ্য বন্ধ হয়ে যায়, অর্থনীতির টালমাটাল অবস্থায় খাদ্য সংকটের আশঙ্কা দেখা দেয়।

এরপর মার্চে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ব্যালিস্টিক মিসাইল পরীক্ষা চালায় উত্তর কোরিয়া। এ ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়া তীব্র নিন্দা জানায়।

গত মাসে জাতিসংঘের আণবিক শক্তি সংস্থা বলেছিল, উত্তর কোরিয়া পরমাণু অস্ত্রের জন্য প্লুটোনিয়াম তৈরি করতে পারে এমন একটি চুল্লি পুনরায় চালু করেছে বলে মনে হচ্ছে, এটি পরিস্থিতির উন্নয়নে ‘গভীর উদ্বেগজনক’।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top