মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা দিল রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশন

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ১৯ ডিসেম্বর ২০২১ ০০:১২

মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা দিল রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশন

রক্তঝরা সংগ্রামের পথ বেয়ে এসেছিল স্বাধীনতা, মুক্ত আকাশে উড়েছিল লাল-সবুজের ঝাণ্ডা; সেই বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তীতে দাঁড়িয়ে সমৃদ্ধ আগামীর স্বপ্নে চোখ রাখা বাংলাদেশ আবারও জানাল- এ জাতিকে দাবিয়ে রাখা যাবে না।
এই মন্ত্র শিখিয়েছিলেন জাতির পিতা শেখ মুজিব। তার জন্মশতবার্ষিকীর উদযাপনের মধ্যেই এসেছে মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তি । আর এই উপলক্ষে রাজবাড়ী জেলার যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা ও সংবর্ধনা দিয়েছে স্থানীয় জনপ্রিয় সামাজিক সংগঠন রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশন ।

রাজবাড়ী পৌরসভা অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠানে এসময় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফকির আব্দুল জব্বার ।
বিশেষ অতিথি হিসেবে সম্মাননা অনুষ্ঠানে অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডঃ মোঃ ইমদাদুল হক বিশ্বাস, পৌর মেয়র মো: আলমগীর শেখ তিতু, রাজবাড়ী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান, প্রাক্তন জেলা শিক্ষা অফিসার সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান,ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারি অধ্যাপক (মেডিসিন) ডা. মোঃ ইকবাল হোসেন এবং রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ক্যাপ্টেন ডা. সুমন হুসাইন । ছয় জন যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা সম্মানিত অতিথি হিসেবে মঞ্চ আলোকিত করেছিলেন ।
সকালেই অতিথিবৃন্দের আসন গ্রহণ, জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে শুরু হয় মূল অনুষ্ঠান । অতিথিবৃন্দকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন সংগঠনের সদস্যরা । স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জনাব ডা. শরীফ ইসলাম । যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাগণ তাদের যুদ্ধের স্মৃতিচারণ করেন এবং রাজবাড়ীর নবীন প্রজন্মের কাছে তাদের প্রত্যাশার কথা ।
অনুষ্ঠানে সমৃদ্ধ এক ভিডিও ডকুমেন্টারির মাধ্যমে হেল্পলাইন ফাউন্ডেশন এর বিগত দেড় বছরের বিভিন্ন কার্যক্রম প্রদর্শন করা হয় । অতিথির ফাউন্ডেশনের কাজের নতুনত্ব ও বৈচিত্র্যের দারুণ প্রশংসা
করেন ।

প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তব্য রাখেন । তাদের বক্তব্যে উঠে আসে রাজবাড়ীর মুক্তিযুদ্ধের গল্প, মুক্তিযোদ্ধাদের গল্প, রাজবাড়ী মুক্ত হওয়ার গল্প । সব অতিথির মুখেই ধ্বনিত হয় রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশনের প্রশংসা গাঁথা - সংগঠনটি অতি অল্প সময়ে কিভাবে রাজবাড়ীর মানুষের আশার বাতিঘর হয়ে দাঁড়িয়েছে , কিভাবে
দ্বারে দ্বারে পৌঁছে দিচ্ছে তাদের সাহায্যের হাত - তার গল্প । রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশন কর্তৃক গৃহীত অক্সিজেন সিলিন্ডার কার্যক্রম সহ বিভিন্ন কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন অতিথি বৃন্দ ।

রাজবাড়ী সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাডঃ মোঃ ইমদাদুল হক বিশ্বাস বলেন," মুক্তিযোদ্ধারা যেমন দেশের মানুষের অর্থনৈতিক ও সামাজিক মুক্তির জন্য যুদ্ধ করেছিলেন, ঠিক তেমনি রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশন রাজবাড়ীর মানুষের অর্থনৈতিক ও সামাজিক মুক্তির লক্ষ্যে যুদ্ধ করছে ।"
সৈয়দ সিদ্দিকুর রহমান বলেছেন, " আমরা যা পারিনি রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশন তা করে দেখিয়েছ । তারা যা করেছেন, আমাদের সবার জন্য তা অনুকরণীয়, অবশ্য অনুকরণীয় । "

অনুষ্ঠানে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদেরকে ক্রেস্ট, শীতের চাদর, স্মারক মগ প্রদান করা হয় ।
রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফটো কনটেস্ট প্রতিযোগিতা এবং কুইজ প্রতিযোগিতার পুরস্কার প্রদান করা হয় ।
সংগঠনটির সভাপতি ও আজকের অনুষ্ঠানের সভাপতি জয়ন্ত কুমার তার সমাপনী বক্তব্যে বলেন, " আমরা রাজবাড়ীকে মডেল জেলা হিসেবে গড়ে তুলতে চাই । আমরা চাই রাজবাড়ীকে সবাই জানুক, রাজবাড়ীর কৃতিত্বগাঁথা ধ্বনিত হোক মানুষের মুখে মুখে । রাজবাড়ী হেল্পলাইন ফাউন্ডেশন এ লক্ষ্যে কাজ করে যাবে নীরবে, নিভৃতে । এমন একদিন আসবে যেদিন এ সংগঠন শুধু রাজবাড়ীতেই সীমাবদ্ধ থাকবে না বরং সারাদেশে এটি স্বপ্ন বুনতে শুরু করবে । "
সংবর্ধনা ও পুরস্কার বিতরণী শেষে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, যেখানে নবীন ও প্রবীণ শিল্পীরা নৃত্য এবং গান পরিবেশন করেন ।

 




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top